মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩, ০৫:১৯ অপরাহ্ন

মেট্রোরেলের উত্তরা সেন্টার স্টেশন যাত্রীদের জন্য খুলে দেওয়া হলো

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ১৪ বার পঠিত

ঢাকায় মেট্রোরেলের উত্তরা সেন্টার স্টেশনটি আজ শনিবার থেকে যাত্রীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। এদিন সকাল সাড়ে ৮টায় দিয়াবাড়ি থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটিতে যাত্রীরা ওঠানামা করছেন বলে জানা গেছে।

আরো পড়ুন: ভারতের মুম্বাই ও দিল্লির অফিস বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার

এর আগে গত বৃহস্পতিবার মেট্রোরেলের অফিসে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছিলেন ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক। তিনি জানান, শনিবার থেকে ‘উত্তরা সেন্টার’ স্টেশন যাত্রীদের জন্য খুলে দেওয়া হবে। আর মিরপুর-১০ স্টেশন চালু করা হবে ১ মার্চ থেকে।

এ ছাড়া আগামী মার্চ মাসের মধ্যেই উত্তরা-আগারগাঁও অংশে থাকা বাকি স্টেশনগুলো অর্থাৎ পুরো ৯টি স্টেশনই চালু করা হবে। ওইদিন এম এ এন ছিদ্দিক বলেন, মার্চ মাসের মধ্যে সব কটি স্টেশনে ট্রেনের যাত্রাবিরতি দেওয়া শুরু হবে। আর জুলাই থেকে পুরোদমে শুরু হবে ট্রেন চলাচল। তখন ভোর থেকে শুরু হয়ে মধ্যরাত পর্যন্ত মেট্রো ট্রেন চলবে।

গত ২৮ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে মেট্রোরেলের যুগে পা দেয় বাংলাদেশ। বহু অপেক্ষার পালা শেষ করে ওইদিন মেট্রোরেলের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রেলের প্রথম যাত্রীও ছিলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পরদিন সীমিত পরিসরে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত শুধু উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত যাত্রী নিয়ে চলে মেট্রোরেল। পরে ২৫ জানুয়ারি পল্লবী স্টেশনেও থামা শুরু করে মেট্রোরেল।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে নেওয়া মেট্রোরেল প্রকল্প এক দশক পর আংশিক চালু হয়েছে। চালু হওয়া মেট্রোরেল প্রকল্পটির নাম এমআরটি লাইন-৬। উত্তরা থেকে কমলাপুর পর্যন্ত এর দৈর্ঘ্য ২১ কিলোমিটারের বেশি। এর মধ্যে থাকছে ১৭টি স্টেশন।

মেট্রোরেল নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ৩৩ হাজার ৪৭২ কোটি টাকা। মেট্রোরেলের প্রথম পরীক্ষামূলক চলাচল শুরু হয় ২০২১ সালের আগস্টে। পরে ১৬ মাস পরীক্ষামূলক চলাচল শেষে ২৮ ডিসেম্বর মেট্রোরেল চালু হয়।

আরো পড়ুন: মারকুটে ইংল্যান্ড, চাপে কিউইরা

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..